এই ৭ টি চিহ্ন দেখলে বুঝবেন চাকরি ছাড়ার সময় এসেছে

Posted in: Career & Education Nov, 03 2014 | Comments

কেরিয়ারের কোন না কোন পর্যায়ে এটা অনেকেরই মনে হয় যে “আমি যে চাকরিটা করছি, তা ঠিক আমার জন্য নয়।” শুধু একটি কারণকে এর জন্য দায়ী করা কঠিন, কিন্তু একদিন হঠাত করেই আপনার মনে হতে পারে যে আপনার কেরিয়ার প্ল্যান এবং আপনার বর্তমান চাকরি আর কিছুতেই একসাথে যাচ্ছে না। হতে পারে আপনার প্রিয় বস চাকরি ছেড়ে চলে গেছে, হতে পারে আপনার প্রায়ওরিটি বদলে যাওয়ার জন্য এমন উপলব্ধি হয়েছে। কারন যাই হোক না কেন, এই উপলব্ধির পরও প্রতিদিন সকালে উঠে, জ্যাম ঠেলে অফিসে যাওয়ার মত বিষাদময় কাজ খুব কমই আছে।

unhappy-worker

এই ক্ষেত্রে করনীয় দুটো- যখন ৭ টি চিহ্নের এক বা একাধিক চিহ্ন আপনার চোখে পড়বে, তা বদলানোর চেষ্টা করুন, অথবা নতুন সুবিধা মত চাকরি খোজা শুরু করুন, যেন দেয়ালে পিঠ না ঠেকে যায়।

এই ৭ টি চিহ্ন দেখলে বুঝবেন চাকরিতে পরিবর্তন জরুরি

কি করবেন বুঝে উঠতে পারছেন না

এই সময় আপনার ঘন ঘন মনে হতে থাকবে যে আপনি অফিসের কাজের জন্য প্রস্তুত না। কোন একটা প্রেসেন্টেশান বা ইভেন্টের কাজ কিভাবে করবেন তা বুঝে উঠতে পারছেন না। সতর্ক হোন।

আপনার দক্ষতা কাজে লাগছে না

অফিসে আপনার দৈনন্দিন কাজ বা দায়িত্ব হওয়া উচিৎ আপনার দক্ষতার সাথে সামাঞ্জস্যপূর্ণ। কিন্তু যদি এমন হয় যে আপনার বস আপনাকে ঠিক মত কাজ দিতে পারছে না, বা আপনি যেই বিষয়ে কাঁচা সেই কাজই বারবার দিচ্ছে, সেই ক্ষেত্রে বেশিক্ষণ উৎসাহ ধরে রাখা কঠিন হয়ে পরে। এরকম হতে থাকলে যত দ্রুত সম্ভব আপনার বসের সাথে কথা বলা উচিৎ ও আপনার জব ডেস্ক্রিপশান হাল নাগাদ করে নেয়া উচিৎ।

কোন চ্যালেঞ্জ নেই

প্রতিনিয়ত একই কাজ করতে হলে কাজে আগ্রহ ধরে রাখা কঠিন। মানুষ বরাবরই নতুন কিছু করতে চায়, দক্ষতাকে বাজিয়ে দেখতে চায়, গঠনমূলক কাজে অংশ নিতে চায়। প্রতিদিনের রুটিন কাজ করে কিন্তু প্রোমশান পাওয়াটাও কঠিন। তাই আপনার যদি মনে হয় আপনি আপনার ক্যারিয়ারে “স্থির হয়ে দাঁড়িয়ে আছেন” তাহলে আজকেই বসের সাথে কথা বলুন ও সমস্যার সমাধান করার চেষ্টা করুন।

টিম বা ডিপার্টমেন্টের অন্যদের সাথে চিন্তার মিল হচ্ছে না

এরকম কি কখন মনে হয়েছে যে আপনি এক লাইনে চিন্তা করছেন, আর আপনার টিম মেম্বাররা পুরপুরি আলাদা লাইনে চিন্তা করছে? আপনি কোম্পানির যেই ডিপার্টমেন্টেই কাজ করেন না কেন, যদি কোম্পানির “ভিশান” আপনি ঠিক মত ধরতে না পারেন বা এর সাথে আপনি একমত হতে না পারেন, তাহলে বুঝতে হবে “চাকরি” আর “আপনি” ভাল ভাবে খাপ খাচ্ছে না। এই ক্ষেত্রে অন্য চাকরি খোঁজাটাই হয়ত ভাল।

কাজ শুরু করে শেষ করার তাগিদ পাচ্ছেন না

সব প্রজেক্টই কি আপনার কাছে পয়েন্টলেস মনে হচ্ছে এবং কাজ করার কোন তাগিদ পাচ্ছেন না? এমন কি হচ্ছে যে কাজ জমা দেয়ার দিন ঘনিয়ে আসছে কিন্তু আপনার কাজ প্রায় পুরটাই বাকি? বা খুব উৎসাহ নিয়ে একটা নতুন কাজ শুরু করলেন কিন্তু কিছুদিন পরেই আগ্রহ হারিয়ে ফেললেন? এরকম একবার দুবার হতেই পারে… কিন্তু ঘন ঘন এমন হলে নিজেকে নিয়ে একটু ভাবার সময় এসেছে।

দায়িত্ব এড়িয়ে চলছেন

সত্যি করে বলুন – নতুন দায়িত্ব পেলে আপনি খুশি হবেন নাকি, কোন মতে অফিসে আর একটি দিন পার করলেই আপনার চলবে? চাকরির শুরুতেও কি আপনি এমনটাই ভাবতেন? যদি দেখেন যে দায়িত্ব এড়িয়ে জেতেই আপনি বেশি স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করছেন, নিজের ক্যারিয়ার নিয়ে আর একবার ভেবে দেখুন।

অন্যকে দোষ দিচ্ছেন

অফিসে যে কোন সমস্যার জন্য আপনি শুধু অন্যদেরই দোষ দিচ্ছেন। কোন সমস্যার পেছনে আপনারও যে কোন অবদান থাকতে পারে, তা আপনি মটেও আমলে আনছেন না। এতে আপনার নিজের যেমন কোন দক্ষতা বৃদ্ধি পাবে না, অফিসের অন্যদের সাথেও সম্পর্কের অবনতি হবে। জীবনে বদল আনার সময় এসেছে।

এই ৭ টি চিহ্ন দেখার মানে এই না যে চাকরিটা আপনার ছেড়ে দিতে হবে। এর অর্থ হল, “এখনো সময় আছে। ক্যেরিয়ার নিয়ে আর একটু ভাবুন এবং পজিটিভ কিছু পরিবর্তন আনুন”। এরকম কোন ঘটনা কি আপনি কখনো ফেস করেছেন? তখন আপনার করনীয় কি ছিল?

আর্টিকেলটি ভাল লাগলে লাইক করুন, শেয়ার করুন। কমেন্ট করে আপনার মতামত জানান।